কলকাতা মিউজিয়াম : একটি অভিশপ্ত স্থান

   

কলকাতা শহরে যেসব কিংবদন্তী ছড়িয়ে রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম ভারতীয় এই জাদুঘরটি। বিচিত্র আর উদ্ভট সব ঘটনার সাক্ষী এই জাদুঘর এবং তার আশেপাশের এলাকা। এই মিউজিয়ামের পাশের রাস্তাটি সদরস্ট্রিট। আজ থেকে প্রায় ২০০ বছর আগে সেখানে থাকতেন লর্ড ওয়ারেন হেস্টিংসনের স্পিক সাহেব। এই স্পিক সাহেবের সময়েই ঘটেছিল এক আশ্চর্য ঘটনা। এই রাস্তার উপরেই স্পিক সাহেবের কাছে এক বিশেষ আর্জি নিয়ে এসেছিলেন এক শিখ যুবক। তার আর্জি মঞ্জুর না হওয়ায় তিনি চড়াও হন স্পিক সাহেবের উপর। ঘটনা তখন তুঙ্গে। হঠাৎ-ই শোনা গেল রাইফেলের তীব্র শব্দ। লুটিয়ে পড়ল যুবকের রক্তাত দেহ। রাতবিরেতে এই স্রিতি নাকি এখনও ফিরে আসে, শোনা যায় গুম গুম শব্দ। এখনেই শেষ নয় আরও আছে , গভীর রাতে অন্ধকারে কে-যেন কাপড় মুরি দিয়ে আজও বেড়িয়ে যায়। এখনও নাকি মধ্যরাতে নত্যকিদের নাচের শব্দ ভেসে ওঠে। কে বা কারা এই ঘটনার সৃষ্টি করছে তা আজও সবার কাছে আজানা। এই মিউজিয়ামের এমন সব ভয়ঙ্কর ও রহস্যময় ভুতুড়ে কাহিনী নিয়ে লিখেছিলেন অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর। মজার ব্যাপার সেই লেখার পাণ্ডুলিপিও সংরক্ষিত আছে এই মিউজিয়ামে।

Facebook Comments