আডবাণী যুগের পাকাপাকিভাবে অবসান হতে চলেছে

   

গাঁধীনগর আসনে আডবানীর বদলে লড়বেন অমিত শাহ। ভারতীয় রাজনীতির ইতিহাসে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা ঘটনা হিসেবে এই মুহূর্তে বিবেচিত। গুজরাতের গাঁধীনগর আসন থেকে সরানো হলো লালকৃষ্ণ আডবাণীর মতো প্রবীণ, জনপ্রিয় ও অভিজ্ঞ নেতাকে। এই প্রথমবার লোকসভা ভোটে নামলেন আমিত শাহ। এরকম একটা সিদ্ধান্তে বিজেপিতে ইতিমধ্যেই একটা শোরগোল পড়ে গেছে। লালকৃষ্ণ আডবাণী বা মুরলীমোহন জোশীর মতো প্রবীণ নেতাদের এভাবে উপেক্ষাকে মেনে নিতে পারছেন না অনেকেই। বিজেপির উত্থান ও সাফল্যের নেপথ্যে থাকা আডবাণীকে এ বারে প্রার্থী না করার পিছনে দলের উদ্দেশ্য মূলত ভোটের জিতকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। বিজেপির উত্থানের নেপথ্যে থাকা আডবাণীকে এ বারে প্রার্থী না করার পিছনে দলের যুক্তি, ভোটে জয়কেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। গত বিধানসভা ভোটে রাহুল গাঁধীর অপরিসীম গ্রহণযোগ্যতার ফলে এই গুজরাতেই বেশ বিপাকে পড়েতে হয়েছিল বিজেপি্কে।  তাই এবারে আর কোনো রিস্ক নিতে চাইছেন না বিজেপি। তবে একটা বিষয় একদমই স্পষ্ট। এবার বোধয় আডবাণী যুগের পাকাপাকিভাবে অবসান হতে চলেছে।

Facebook Comments