ভ্রমণ পিপাসুদের স্বপ্নের জায়গা

   

যাদের ভ্রমণের নেশা আছে তাদেরকে আলাদা করে কিছুই বলার নেই। কিন্তু যারা সারাবছরই কাজের প্রেসারে ব্যস্ত থাকেন তারা বছরে একবার হলেও এই সমস্ত জায়গাগুলি থেকে ঘরে আসতে পারেন। এই জায়গাগুলি অনেকটাই পালটে ফেলতে পারে আপনার জীবনদর্শন।

  • প্রথমেই আসে ফ্রান্সের লেস্কোর কথা। বলা হয়ে থাকে লেস্কোর গুহার ভিতরের ছবিগুলি যীশুর জন্মের প্রায় ২০ হাজার বছর আগের।
  • মিশরের গিজার পিরামিডের কথা না বললেই নয়। কায়রোর নিকটেই অবস্থিত প্রায় সারে চার হাজার বছরেরও পুরোনো এই স্থাপত্য। ফারাওদের স্মৃতিস্তম্ভ হিসেবে সংরক্ষিত করা হয়েছে এগুলিকে। প্রায় সমস্ত চেষ্টা করেও এই পিরামিডগুলির কোনো রহস্য উন্মোচন করতেন পারেননি কোনো পুরাতত্ত্ববিদ।
  • গ্রিসের ডেলফি সেরকমই আরেক উল্লেখযোগ্য প্রত্নস্থানের নাম। দৈববানীতে নির্ভরশীল গ্রীসের এই কেন্দ্রটি সফোল্কিসের বিভিন্ন বর্ননা থেকে আমরা জানতে পারি। প্রাচীন গ্রীসের রাজারা যে কোনো জটিল বিষয়ের মুখোমুখি হলেই এখানে অ্যাপেলোর মন্দিরে উপস্থিত হতেন।
  • মেক্সিকোর মায়া পিরামিডের কথা হয়তো আপনি শুনেই থাকবেন। ৩ হাজার বছর আগে মায়ানরা আমেরিকার সর্বত্র বসতি স্থাপন করেছিলেন। বিসেষ করে মেক্সিকোর ইউকাটান উপত্যকায়। এখানেই আছে তাদের ১২৫ ফুট উঁচু পিরামিড অফ দ্য ম্যাজিশিয়ান।
Facebook Comments