চুলপড়া হাত থেকে রেহাই পেতে এই উপায়গুলি মেনে চলুন

   

চুলের সৌন্দর্যের উপরই আমাদের সামগ্রিক সৌন্দর্য নির্ভর করে বলে জানা গেছে। সেই চুলই যদি সূক্ষ্ম ও বিবর্ণ হয়ে থাকে তাহলে তা ব্যক্তিত্বে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। সারাবছরই আমাদের চুলের নানা সমস্যা দেখা যায়। সেই সমস্ত সমস্যাকে পিছনে ফেলে নিজেকে আরও সচেতন করে তোলার জন্য কয়েকটি টিপস আপনি সহজেই মেনে চলতে পারেন।

প্রতিদিন শ্যাম্পু করা বন্ধ করুন। এতে আপনার চুলের উপর তেলের স্বাভাবিক আস্তরন পড়া বন্ধ হয়ে গিয়ে চুল রুক্ষ্ম হয়ে যায়। তাই সপ্তাহে দুবারের বেশি শ্যাম্পু না করাই ভালো। তাতে চুল ভালো থাকবে।

মাসে অন্তত একবার প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে চুল ডিপ কন্ডিশনিং করা দরকার। নারিকেল তেল, অলিভ অয়েল, আমন্ড অয়েল বা সরিষার তেল চুলের পক্ষে খুব ভালো কন্ডিশনার। বড় দুই তিন চামচ তেল গরম করে তারপর হালকা ঠাণ্ডা করে নিন। ঈষদুষ্ণ থাকতে থাকতেই তেলটা চুলের গোড়ায় এবং গোটা চুলে ভালো করে মেখে নিন। শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে ঢেকে সারারাত রেখে দিন। পরের দিন শ্যাম্পু করে নেবেন।

যাদের চুল কোঁকড়ানো বা কার্লি তারা শ্যাম্পু করার আগেই প্রি-কন্ডিশনিং করুন। এতে আপনি দারুণ ফল পাবেন। আমরা সাধারণত শ্যাম্পু করার পরই কন্ডিশনার ইউজ করে থাকি। কিন্তু আজকাল প্রি কন্ডিশনার ব্যবহার করার চল শুরু হয়ে গেছে। এটি খুব ভালো ফলাফল দিচ্ছে ব্যবহারকারীদের।

ভিজে জবজবে চুল আঁচড়াবেন না। এতে চুল ওঠার প্রবণতা বেড়ে যায়। আবার চুল ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। তাই চুল ভালো করে শুকিয়ে তবেই চিরুনি ব্যবহার করুন। আর বড়ো দাঁতের চিরুনি ব্যবহার করুন। কাঠের চিরুনি চুলের পক্ষে খুবই ভালো।

Facebook Comments