আন্তর্জাতিক শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভালে বাংলা ছবি ময়ভূমি

   

যুধিষ্টির দত্ত

২০১৮ সালের নাইজেরিয়ার লাগোসে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক ইনশর্ট ফিল্ম ফেস্টিভালে অফিসিয়াল সিলেকশন হয়েছে ঋষি ভট্টাচার্য্য নির্দেশিত বাংলা শর্ট ফিল্ম “ময়ভূমি”-র। সেই সুযোগে সিনেমাটা দেখার সৌভাগ্য হয়ে গেলো। না দেখলে হয়তো জানতামি না যে মানুষকে এভাবেও ভাবানো যায়। কাম এক শারীরিক চাহিদা। পিপাসাও তাই। এই দুই এর মধ্যে অদ্ভুত এক যোগসূত্র স্থাপন করা হয়েছে ময়ভূমিতে। শুরু থেকে শেষ অবদি হালকা মেজাজের মোড়কে, বেশ কিছু মজার মুহূর্ত তৈরি করে, ভীষণ গভীর আর গুরুত্বপূর্ণ বার্তা বহন করে এই ছবি। আগাগোড়া তথ্য সমৃদ্ধ শর্ট ফিল্মটা দেখলেই বোঝা যায় যে কি পরিমাণ গবেষণা আছে এর পেছনে। বাহবা দিতে হয় লেখক সৌম্যজিতকে। গল্পটা কিছু অল্প বয়েসী ছেলেদের মধ্যে আড্ডা ইয়ার্কি দিয়ে শুরু হয়। যেখানে উঠে আসে যৌবনের শারীরিক কৌতুহল, নিজেদের মধ্যে ধার দেনা করে হাত খরচা চালানো, হাসি ঠাট্টা ভরা নিখাদ বন্ধুত্ব এমনকি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সম্ভাব্য কারন নিয়ে যুক্তি তর্ক। গল্প এগিয়ে চলে মসৃণ গতিতে কোন নিষিদ্ধ পল্লীর উদ্দেশ্যে যখন কৌতুহলী যৌবন বাঁধ ভেঙ্গে শারীরিক উত্তেজনা শান্ত করতে অস্থির হয়ে ওঠে। কিন্তু দর্শকের সব হিসেব গরমিল করে দারূণ চমক দেয় ছবির শেষটা। যুবক তার কুমারত্বর বিনিময়ে গণিকাকে উপহার দেয় এক অতি আবশ্যক এবং মহার্ঘ সম্পদ। কি সেই সম্পদ যার জন্য লাগতে পারে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ? জানতে হলে অবশ্যই দেখতে হবে অসাধারণ এই ছবি, ময়ভূমি। ময়ভূমির ধারণা যেমন অসাধারণ তেমনি নিখুঁত ছবিটির সব প্রজুক্তিগত খুঁটিনাটি। তাই জন্যই হয়তো ময়ভূমি KSFF 2016 এর সেমিফাইনালিস্ট ছাড়াও বিশ্বজোড়া স্বীকৃতি পেয়েছে অফিসিয়াল সিলেকশনের মাধ্যমে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভালে যেমন FINA 2015, MNMISFF 2016, IBIF 2017 এবং AMC Theatres 2017। বাঙালি হিসেবে যতটা গর্ববোধ হয় ময়ভূমির সাফল্যের জন্য ততোধিক আশা বেড়ে গেলো ঋষি আর তার টিমের ওপর।

Facebook Comments