জেনে নিন কোন কোন খাদ্যে কখনও পচন ধরে না

শুনতে খুব অবাক করা কথা হলেও ঘটনাটি সত্য। এমন কিছু পদ্ধতি আছে যাতে কোনো কোনো খাদ্যদ্রব্য বহু বহু বছর একই খাদ্যগুন বজায় রেখে টাটকা থাকে। আবার নির্দিষ্ট কিছু তাপমাত্রায় কিছু খাবার সারাজীবনই ঠিকঠাক থাকে। সেগুলি কোনোদিনই পচে না। সেরকমই কয়েকটির কথা জেনে নেওয়া যাক।

(১) মধু – নষ্ট হয় না বললেই চলে। মধু এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ১০ হাজার বছরেও কোনোরকমভাবে নষ্ট হয় না। এবং নিজের খাদ্যগুন যথাযথ বজায় রাখতে পারে।

(২) লবন – নুন বা লবনের ক্ষেত্রেও একই কথা। নুন কোনোদিনই নষ্ট হয় না। তা যতদিন পর্যন্ত চাইবেন ততদিন রাখা যাবে। এছাড়াও নুন অন্য জিনিস অবিকৃত রাখার ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। কিন্তু নুনের মধ্যে আয়োডিন মেশানো থাকলে তার খাদ্যগুন বজায় থাকে মাত্র ৫ বছর পর্যন্ত। তবে একে যে পাত্রে রাখা হবে তার ঢাকনা ভালো করে আটকে রাখতে হবে।

(৩) চাল – যে কোনো চালই ৪০ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রার মধ্যে রাখলে তা চোখ বন্ধ করে  ৫০ বছর অবিকৃত অবস্থায় থাকবে। আর খাদ্যগুনও যথাযত থাকে।

(৪) গুঁড়ো দুধ – গুঁড়ো দুধ আপনি অনেক বছর ধরে রেখে দিতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে পাত্রের ঢাকনা ভালো করে বন্ধ করে রাখতে হবে যাতে বাতাস না ঢুকতে পারে।

(৫) সয়া সস – সয়া সস কখনোই নষ্ট হয় না। আর ফ্রিজের মধ্যে রাখলে তো কোনো কথাই নেই। আপনি যতদিন চাইবেন রাখতে পারেন।

Facebook Comments