বাজেটের ভেতর শপিং করার কিছু টিপস

শপিং করাটা কমবেশি সকলের কাছেই একটা ভালোলাগার বিষয়। তবে মহিলারা শপিং করেন খুব আনন্দ করেই। কিন্তু শপিং করতে গিয়ে একটা সমস্যা সবারই হয় তা হল বাজেট ক্রস। গেলেন একটা-দুটো জিনিসের জন্য, আর ঘরে ফিরলেন হাত ভর্তি ব্যাগ নিয়ে। কেউ এই সমস্যা এড়াতে কী কী লাগবে তার তালিকা করে নেন, কেউ বা কম টাকা রাখেন ওয়ালেটে। তবু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই শেষরক্ষা হয় না। বাজেটের ভেতর শপিং করার কিছু টিপস দেওয়া হল-

১) সুন্দর করে সাজানো দোকান এড়িয়ে চলুন

আলো ঝলমল সাজানো দোকান থেকে দূরে থাকুন। সুসজ্জিত দোকানে খরচ বেশি করতে ইচ্ছে হবে আপনার। তাছাড়া ওইসব দোকানে ডামি পুতুলকে পরানো ড্রেস দেখে আপনার আকৃষ্ট হবার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আর ডামি ডলগুলোকে সেসব পোশাক পরানো থাকে সেগুলোর দামও অনেক বেশি।

) শপিং করতে নতুন টাকা ব্যবহার করুন

কচকচে নতুন টাকা খরচ করতে কারই বা ইচ্ছ একরে সহজে! এ কারণে কার্ড বা পুরনো মলিন টাকার বদলে নতুন টাকা মানিব্যাগে রাখুন। এতে খরচের হিসেব মাথায় থাকে।

) শপিং-এর মাঝে বিরতি নিন

ব্র্যান্ডেড জুতো বা ব্যাগ পছন্দ হয়ে গেছে, খরচ হবে অনেকটা টাকা। এমন অবস্থায় হুট করে জিনিসটা কিনে ফেলবেন না। দোকান থেকে বের হয় অন্য কোথাও বসুন, নিজেকে ভাবার সময় দিন। আসলেই কি এই জিনিসটা আপনার দরকার? এখনই দরকার? কীভাবে এই জিনিসটা ব্যবহার করবেন? এসব প্রশ্ন নিয়ে ভাবলে অনেক সময়েই দেখবেন, জিনিসটার পেছনে এতগুলো টাকা খরচের ইচ্ছে উবে গিয়েছে।



) দোকানের সংখ্যা কমিয়ে ফেলুন

শপিংয়ে যাবার আগেই ঠিক করে ফেলুন, আপনি পোশাকের জন্য দুটি দোকানের যাবেন, জুতোর জন্য দুটি দোকানে যাবেন, ব্যাগ এবং প্রসাধনীর জন্য একটি দোকানে যাবেন- ইত্যাদি ইত্যাদি। অতিরিক্ত কোনো দোকানে না গেলে অতিরিক্ত কেনাকাটার কথা মাথাতেও আসবে না।

) সেলের সময়ে কেনাকাটায় সতর্কতা

৪০ শতাংশ বা ৫০ শতাংশ ছাড় দেখে অনেকেরই চোখ ছানাবড়া হয়ে যায়। কিন্তু এই খুশিতে কেনাকাটা করতে গিয়ে বাজেট ক্রস হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ১০০ শতাংশ। এ ব্যাপারে একটু সতর্ক থাকুন। সেলের সময়ে কেনাকাটা করা ভালো, তবে বুঝেসুঝে।

) সেলসম্যান বা সেলসগার্লের সাথে বেশি গল্প নয়

দোকানে সেলসম্যান বা সেলসগার্ল থাকে বিক্রি বাড়ানোর জন্যই। তারা আপনার সঙ্গে কথা বলে বিভিন্ন উপায়ে আপনাকে বোঝানোর চেষ্টা করবে সেই দোকান থেকে বেশি জিনিস কিনলে আপনারই ভালো। তাদের কথায় গলে গিয়ে অনেকেই অতিরিক্ত কেনাকাটা করে ফেলবেন না। মোদ্দা কথা তাদের সঙ্গে বেশি গল্প না করাই ভালো।

Facebook Comments