ঘরে বানিয়ে নিন সুগন্ধি ক্লিনার

রূপা সাহা

ঘরের আসবাব বা বাথরুম যেদিকেই আঙুল দেখান না কেন গৃহিনীদের সব কিছুই পরিষ্কার রাখতে হয়। শীত হোক বা গ্রীষ্ম হোক সবসময়ই সমানভাবে ধুলো জমতে থাকে। একদিন হয়ত পরিষ্কার করলেন সব, দেখবেন আবার ২/৩ দিন পরেই তাতে ধুলো জমে গেছে। এই পরিষ্কারের সময় গৃহিনীদের সঙ্গী হয় শুধু একটা ডাস্টার আর লিকুইড যেটা দিয়ে পরিষ্কার করা হয়। আজ এমন একটা টোটকা দিতে আপনাদের, যার থেকে আপনি ঘরেই সেই ক্লিনার লিকুইড বানিয়ে নিতে পারবেন।

সাধারনত বাজার চলতি ক্লিনারে থাকে ক্ষতিকারক কেমিক্যাল যাতে আমাদের হাতের ক্ষতি হয়। ঘরে বানানো এই ক্লিনারে হাতের ক্ষতি কম হবে উপরন্তু এর মিস্টি সুগন্ধ সারা ঘরে ছড়িয়ে পরবে। আর শুধু ফার্নিচার নয়, এটা দিয়ে আপনি পরিষ্কার করতে পারবেন আপনার বাথরুমও।

প্রথমে আপনাকে কিছু পরিমান কমলালেবুর খোসা আর পাতি লেবুর খোসা জোগাড় করতে হবে। এই সুবাদে আপনার এই দুটো ফল খাওয়া হবে, যার উপকারিতা অনেক। এবার এর খোসাকে আপনি একটা কাঁচের বয়ামে ভরে তাতে অনেকটা পরিমান ভিনিগার দিয়ে মুখ আটকে ঘরের এক কোনায় যেখানে রোদ পৌছায় না সেখানে রেখে দিন। সবথেকে ভালো হয় যদি আপনি এটাকে আলমারি বা ওয়ার্ড্রব বা ক্লজেটে রেখে দিতে পারেন। এভাবে আপনি এটাকে দিন সাতেক রেখে দিন। এর মধ্যে কিন্তু এই বয়ামের মুখ খুলবেন না। এবারে সাতদিন পরে আপনি এই বয়ামের মুখ খুলে এই লিকুইডটাকে একটি স্প্রে বোতলে ঢেলে খোসাগুলো ফেলে দিন। ব্যাস রেডি আপনার ক্লিনার স্প্রে। এটা দিয়ে স্প্রে করে এবারে আপনি আপনার ঘর ফার্নিচার সমস্ত কিছু পরিষ্কার করে নিতে পারবেন। শুধু তাই নয় ঘরে কোনো খারাপ গন্ধ এলে বা গেস্ট আসলে এই স্প্রে দিয়ে ঘরে সুগন্ধও আনতে পারবেন।

এবার ক্লিনিং-এর ব্যাপারে আপনাকে কিছু টিপস দিই। আমাদের ঘরে ফার্নিচার থেকে বইপত্র সমস্ত কিছুতেই ধুলো পড়তে থাকে, রোজ রোজ কত পরিষ্কার করা যায়! তাই আপনাকে বলি দিনের মধ্যে একটা নির্দিষ্ট টাইম বেছে নিন আপনার সুবিধামত, সেই সময় সোম থেকে শনি একেক দিন একেকটা জিনিস ক্লিন করার জন্য বেছে নিন। যেমন ধরুন সোমবার আপনি সেলফে সাজানো বইগুলোর ওপর একটু ডাস্টার বোলালেন, মঙ্গলবার বাইরে সাজানো শোপিসগুলো ঝেড়ে নিলেন। বুধবার ফার্নিচারগুলোর উপর জমে থাকা ধুলো সরিয়ে দিলেন। এইভাবে নিয়ম করে রোজ কিছু কিছু কাজ করলে আপনার সময়ও লাগবে কম আর খাটনিও বাঁচবে। আর প্রথমেই শুকনো কাপড় দিয়ে ধুলো ঝাড়বেন না। সারা বাড়ি ধুলো উড়তেই থাকবে। বরং অল্প ক্লিনার বা জল লাগিয়ে মোছা শুরু করুন ধুলো কাপড়ের সঙ্গেই লেগে থাকবে। তাই ধুলো দেখে ঘাবড়ানোর দিন শেষ, আর মিষ্টি সুগন্ধের সাথে ধুলোকে বলুন আলবিদা।

Facebook Comments