মেদ কমাতে ব্যায়াম নয়, প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি

সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠা জীবনে নিয়মানুবর্তিতা আনে। সকালে ঘুম থেকে ওঠাকে কেন্দ্র করে আছে নানা কবিতা আর ছড়া। যার মূল লক্ষ্য হচ্ছে আপনাকে সুস্বাস্থ্যর অধিকারী করা। বর্তমান সময়ের সুস্বাস্থ্য বলতে কেবল রোগা পাতলা হওয়াকে বোঝায়। কিন্তু এটি মূলত একটি ভুল ধারণা। তবে আপনার শরীরে অতিরিক্ত মেদ না থাকলে আপনি খুব সহজে চলাফেরা করতে পারবেন এবং এটি আপনার শরীরে নানা ধরনের রোগ যেমন ব্রেইন স্ট্রোক, ডায়াবেটিক, হৃদ রোগের ঝুঁকি কমায়। এই সুন্দর আর সুস্বাস্থ্য অধিকারী হওয়ার জন্য আপনার ঘণ্টা ধরে ব্যয়াম আর ডায়েট না করলেও চলবে। শুনে অবাক হলেও কথাটি সত্য। আপনার সকালের কিছু অভ্যাস আপনাকে বাড়তি মেদমুক্ত করতে পারে আর দিতে পারে একটি প্রাণবন্ত জীবন। যে কারণে সবাই বলে স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। আর এর মূলে কাজ করতে পারে আপনার সকালে কিছু অভ্যাস। চলুন সেই অভ্যাসগুলো সম্পর্ক জেনে নেই।

সকালের রোদ
সকালের রোদে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ডি থাকে। আর এই রোদ শরীরে পড়লে রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়, ত্বক সুন্দর হয়। সূর্যের আলোর ভিটামিন ডি আপনার শরীরে সকালে স্পর্শ করালে তা থেকে আপনি পাবেন প্রচুর এ্যানার্জি আর মানসিক শক্তি। এর এ্যানার্জি আপনাকে প্রতিদিনের কাজ করতে সাহায্য করবে। ফলে আপনার মনে হবে না যে আপনার শরীর দুর্বল হয়ে যাচ্ছে আর প্রচুর খাওয়া উচিৎ। এটি খাবারের হজম প্রক্রিয়া স্বাভাবিক রাখে তাই মেটাবলিজমেও সাহায্য করে। হাঁটা কিংবা ব্যায়ামের সময় ক্লান্তি কম লাগে। ফলে আপনি নিজেকে প্রাণবন্ত অনুভব করেন। পাশাপাশি এটি আপনার শরীরের বাড়তি মেদ ঝরাতেও সাহায্য করে।

উচ্চ মাত্রার প্রোটিন
খাবারে থাকা প্রোটিন আমাদের শরীর ঠিকমতো পায় না বিধায় শরীরে ক্লান্তি আর মেদ জমা শুরু করে। আমরা সবাই প্রায় সকালেই ব্রেকফাস্ট করি না। আর এটা ভাবি যে এটি আমাদের শরীরের মেদ কমাতে সাহ্যয্য করবে। আর টিফিন হিসেবে যদিও কিছু খাই তা হচ্ছে কফি, চা কিংবা ফাস্টফুড। যা আপনার শরীরের ওজন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। তাই বাড়তি ওজন কমাতে চাইলে সকালে ব্রেকফাস্ট করে বের হোন এবং খাবারে অবশ্যই উচ্চ মাত্রার প্রোটিন জাতীয় খাবার রাখুন।

ঠান্ডা জলে দিয়ে স্নান
সকালে অনেকেই হালকা গরম জল দিয়ে স্নান করে বের হয়। এটি আপনাকে সারাদিন প্রাণবন্ত থাকতে তেমন একটা সাহায্য করেনা। তবে এর জায়গায় আপনি যদি ঠন্ডা জল দিয়ে স্নান করেন এটি আপনার শরীরে কাজ করবে ঠিক দুভাবে। প্রথমত এটি আপনাকে সারাদিনের কাজে মনোনিবেশ করতে সাহায্য করবে আর আপনার শরীরের মেদ কমাতে সাহায্য করবে। এই ঠান্ডা জল আপনার শরীরে পর্যাপ্ত রক্ত চলাচলে সাহায্য করে আর হজম ক্রিয়া সচল রাখে।

খাবার সঠিক ভাবে খাওয়া
অনেকেই খাবার সঠিকভাবে চিবিয়ে খান না। এটি অনেকাংশে আপনার শরীরের ওজন বাড়াতে সাহায্য করে। খাবার সঠিকভাবে চিবিয়ে না খেলে তা হজম হতে সময় লাগে আর খাবারে থাকা চিনি আমাদের শরীরে প্রচুর পরিমাণে মিশে যেতে থাকে। এছাড়া হজমে সমস্যা দেখা দেয়। তাই আস্তে ধীরে খাবার শেষ করে কাজে মনোযোগী হোন।

Facebook Comments