আপনার স্বপ্নের বাড়ি সাজিয়ে তোলার মুহূর্তে নজর রাখুন এই পাঁচটি বিষয়ে

অনেকেই ঘর সাজানোর ক্ষেত্রে সাধারণ কিছু ভুল করে ফেলেন। কিন্তু এই ভুলের প্রভাব পড়ে ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব, এমনকি রূচিতেও। বাইরে থেকে আসা আগন্তুকের কাছে অন্য বার্তাও পৌঁছে যেতে পারে এই ত্রুটি গুলি থেকে। তাই জেনে নিন কী সেই ভুল।

যে ঘরটিকে আপনি সাজিয়ে তুলছেন একটু খেয়াল রাখুন সে ঘরে কে থাকবেন ? মূলত কোনো শিশু বা অলস মানুষের থেকে সাবধানে রাখুন নিজের কক্ষটিকে। রুচির সঙ্গে বাস্তব দিকগুলিরও খেয়াল রাখার চেষ্টা করুন আপনি। যে শিশুটি সবকিছু নোংরা করে ফেলবে তার কক্ষে নিশ্চয়ই শুভ্র সাদা সোফা দেওয়ার চিন্তা করবেন না। তাই রুচির সঙ্গে বাস্তবতার খাপ খাওয়াতে হবে। যে ঘরে যে মানুষটি বাস করবেন তার সঙ্গে মানানসই করে সাজাতে হবে।

বাড়িতে কোথায় কী আসবাব রাখবেন তা আপনাকে ঠিক করে বুঝে নিতে হবে। কারণ, কোথায় বসে কোন কথাটি বললে আপনার ঘরের শ্রীবৃদ্ধি ঘটবে তা বুঝে নেওয়া খুবই দরকার। কাজেই সেক্ষেত্রে বিভিন্ন ম্যাগাজিন বা অনলাইনে সার্চ করে কিছুটা হেল্প নিতে পারেন।

সোফার ওপরে কোনো বিশাল আকারের ছবি রাখবেন না। তা অনেকক্ষেত্রেই বিপদের কারণ হতে পারে। চেষ্টা করুন ছোটো ফ্রেমের পোট্রেট রাখার। তাতে আপনার ঘরের দেওয়ালের সৌন্দর্য বাড়বে।

আয়তনে ছোটো ঘরকে কখনোই গাঢ় রঙে চুবিয়ে রাখবেন না। তা অনেক সময়ই আপনার মানসিক অসুস্থতার জন্ম দিতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আমরা দেখি অনেকে ছোটো ঘরগুলিকে সুন্দর দেখাবার জন্য গাঢ় রঙ করার পক্ষপাতিত্ব করেন। কিন্তু আপনি কি জানেন, এতে আমাদের সংবেদি স্নায়ু ক্লান্ত হয়ে পরতে পারে। কাজেই নিজের ছোটো কক্ষ থাকলে তাকে যথাসম্ভব হালকা রঙে সাজিয়ে তুলুন। এতে আপনার কক্ষটিও অনেকটা বড়ো ও খোলামেলা দেখাবে।

আপনার ঘরে মানানসই দেখে দুটি বা তিনটি টেবিল ল্যাম্প রাখার চেষ্টা করুন। তা শুধু ঘরের উজ্জ্বলতাই নয়, ঘরটিকে আরো রুচিশীল ও ঘোচানো করে তুলবে।

Facebook Comments