হাওড়ার সবলা ও ক্রেতা সুরক্ষা মেলায় মঞ্চস্থ হল সৌম্যজিৎ আচার্য-র নাটক ‘গেলাম রে’

আবীর রায়

বাংলা সাহিত্যে এখন যারা বলিষ্ঠ লেখা লিখছেন, সৌম্যজিৎ আচার্য তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি নাম।  মূলতঃ কবি ও গল্পকার। তবে সৌম্যজিৎ নাটকও লিখেছেন বেশ কিছু। সেগুলো মঞ্চস্থও হয়েছে একাধিকবার। সম্প্রতি হাওড়া জেলা সবলা ও ক্রেতা সুরক্ষা মেলায় মঞ্চস্থ হলো সৌমজিৎ আচার্যর লেখা একটি ছোটদের নাটিকা ‘গেলাম রে’। নাটিকাটির চরিত্রগুলোও আকর্ষণীয়। এই নাটিকায় মূল চরিত্র হিসেবে আছে একদল মশা আর মাছি।

পয়লা ডিসেম্বর এই মেলার উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গ স্বনিযুক্তি দপ্তর ও ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী শ্রী সাধন পান্ডে। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উলুবেড়িয়া দক্ষিণের বিধায়ক শ্রী পুলক রায় ও অন্যান্যরা। ব্যবস্থাপনায় ছিল হাওড়া জেলা প্রশাসন, উলুবেড়িয়া পৌরসভা ও উলুবেড়িয়া -১ পঞ্চায়েত সমিতি। ৩রা ডিসেম্বর নাটিকাটি মঞ্চস্থ করে কালীনগর হাই স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা।

কবি সৌম্যজিৎ আচার্য জানান, “নাটক শিল্পের একটা গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ খুব সোজাসুজিভাবে দর্শকের কাছে পৌঁছায় নাটকের মধ্য দিয়ে। কবিতা ও গল্পের একটা নির্দিষ্ট টার্গেট গ্রুপ আছে। কিন্তু এ ধরণের জনচেতনামূলক নাটকের মাধ্যমে জনগণের কাছে দ্রুত পৌঁছে যাওয়া যায় খুব সহজেই, এবং জনচেতনাও বাড়ানো যায়। তাই আবসার্ড বা তথাকথিত ইন্টেলেকচুয়াল নাটকের পাশাপাশি এ ধরণের দু-একটা ছোটদের নাটক লিখতে চেষ্টা করেছিলাম। আর তাছাড়া ছোটদের নিয়ে কাজ তো খুব একটা হচ্ছে না।”

সৌম্যজিৎ জানান, তাঁর প্রকাশিতব্য অষ্টম বইটি নাটকেরই। তবে সেটি সাইকোলজিক্যাল সাসপেন্সের ওপর।

Facebook Comments